• সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৩ মাঘ ১৪২৯  |   ১৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

আরও চটেছে ইরান, ভাঙল পরমাণু চুক্তির শিকল

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০৬ জানুয়ারি ২০২০, ০৯:০৪
হাসান রুহানি
পরমাণু কেন্দ্র পরিদর্শন করছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি (ছবি : তেহরান টাইমস)

মার্কিন বিমান হামলায় শীর্ষ সামরিক কর্মকর্তা জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার প্রতিবাদে এবার পরমাণু চুক্তি থেকে পুরোপুরি সরে আসার ঘোষণা দিয়েছে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান। ২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত চুক্তির মাধ্যমে যেসব বিধিনিষেধ আরোপিত হয়েছিল, এখন আর তা মানা হবে না বলে সাফ জানিয়ে দিল তেহরান।

কাতারভিত্তিক গণমাধ্যম আল-জাজিরা জানায়, রবিবার (৫ জানুয়ারি) বিকালে রাজধানী তেহরানে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার এক বৈঠকের পর বিবৃতির মাধ্যমে ঘোষণাটি দেওয়া হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, এখন থেকে পরমাণু শক্তি বৃদ্ধি, উপকরণ সমৃদ্ধকরণ অথবা গবেষণার ও উন্নতির ক্ষেত্রে আর কোনো সীমাবদ্ধতা মানবে না ইরান। তবে দেশটি এখনো পরমাণু বিষয়ক আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকদের সহায়তা প্রদান অব্যাহত রাখবে।

ইরানের স্বাক্ষরিত ছয় জাতি পরমাণু চুক্তি অনুযায়ী, আগামী ২০৩১ সাল পর্যন্ত দেশটিকে কেবল অল্প সংখ্যক ইউরেনিয়াম উৎপাদনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। যার মাত্রা হবে মোট উৎপাদনের প্রায় তিন থেকে চার শতাংশ।

বিশ্লেষকদের মতে, একটি পারমাণবিক অস্ত্র তৈরির ক্ষেত্রে যে ইউরেনিয়াম প্রয়োজন তার মাত্রা মোট উৎপাদনের প্রায় ৯০ শতাংশ বা তার থেকেও অধিক। চুক্তি অনুযায়ী, তেহরান কখনোই ৩০০ কেজির অধিক ইউরেনিয়াম নিজেদের কাছে মজুদ রাখতে পারবে না।

তাছাড়া ইরানি সরকার কখনোই একশ ৩০ টনের অধিক ভারী পানি; যার মধ্যে সাধারণ পানির চেয়ে অনেক বেশি হাইড্রোজেন থাকে তাও সংরক্ষণ করার অনুমতি পাবে না।

এ দিকে ২০১৫ সালে ইরানের সঙ্গে স্বাক্ষরিত ছয় জাতির পরমাণু চুক্তি থেকে ২০১৮ সালে নিজেদের বের করে নেয় যুক্তরাষ্ট্র। একই সঙ্গে ওবামা আমলে স্বাক্ষরিত চুক্তিটিকে 'ক্ষয়িষ্ণু ও পচনশীল' আখ্যা দিয়ে তেহরানের তেল বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। যদিও এর পরপরই এই দুদেশ মধ্যকার সম্পর্কে এক বৈরিতা দেখা দেয়, যা এখনো অব্যাহত আছে।

ইরানের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষরকারী সদস্য রাষ্ট্রগুলো হলো- মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, রাশিয়া, চীন (পি-ফাইভ) ও জার্মানি (ওয়ান)।

আরও পড়ুন :- যুক্তরাষ্ট্রকে রুখতে যা আছে ইরানের অস্ত্রাগারে

অপর দিকে শুক্রবার (৩ জানুয়ারি) ভোরে বাগদাদের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মার্কিন বিমান হামলায় জেনারেল কাসেম সোলাইমানি নিহত হন। যুক্তরাষ্ট্রের সেই অভিযানে ইরান সমর্থিত পপুলার মবিলাইজেশন ফোর্সেসের (পিএমএফ) উপপ্রধান আবু মাহদি আল-মুহান্দিসসহ বাহিনীর বেশ কয়েকজন সদস্য প্রাণ হারান।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: odhikaronline@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড