• বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

রাবিতে খোলা আকাশের নিচে চলছে উৎসবমুখর ইফতার 

  রাবি প্রতিনিধি

০৭ এপ্রিল ২০২৩, ১২:৫০
রাবিতে খোলা আকাশের নিচে চলছে উৎসবমুখর ইফতার 

কেউ ইফতার পরিবেশন করছেন, কেউবা শরবত তৈরি করছেন আর কেউবা গোল হয়ে বসে অপেক্ষার প্রহর গুনছেন। বিকাল নামলেই এমন এক উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে।

প্রতি বছর পবিত্র রমজান মাসে ক্যাম্পাস বন্ধ থাকলেও করোনাকালীন শিক্ষাক্ষতি পুষিয়ে নিতে এবার চলছে ক্লাস-পরীক্ষা। তাই এবার রোজা শেষে নিজ ক্যাম্পাসেই ইফতারটা সারছেন শিক্ষার্থীরা। বন্ধু-বান্ধব, বড়ভাই-ছোটভাই ও শিক্ষকদের সাথে ইফতারে মজেছেন তারা। কেউবা নবীন আর কেউবা এবারই শেষবারের মতো নিজ ক্যাম্পাসে করছেন ইফতার।

সরেজমিনে ক্যাম্পাস ঘুরে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ হবিবুর রহমান হল মাঠ, শেখ রাসেল মাঠ, শহীদ মিনার চত্বর, জুবেরি মাঠ, সাবাস বাংলাদেশ মাঠসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোর ছাদে, বিভিন্ন বিভাগের গ্যালারি কক্ষে অনুষ্ঠিত হচ্ছে বিভাগ ও ব্যাচের ইফতার। এছাড়াও হলের প্রতিটি রুমেই রুমমেটদের সাথে ইফতার তো আছেই। সেই সাথে আছে জেলা সমিতি, উপজেলা সমিতি এবং ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের ইফতার।

মূলত আসরের পর থেকেই দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোর সামনে ও ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরীণ দোকানগুলোতে শিক্ষার্থীদের জন্য নানা স্বাদের ইফতার সামগ্রীর পসরা সাজিয়ে বসে আছে দোকানিরা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকাংশ শিক্ষার্থী মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্ত পরিবার থেকে উঠে আসা। তাই ইফতারের আয়োজনে তাই শিক্ষার্থীদের পছন্দের তালিকায় এগিয়ে থাকে চিরচেনা ছোলা, পেঁয়াজু, খেজুর, বেগুনি, চপ, মুড়ি, জিলাপি, ফলসহ বিভিন্ন রকমের জুস ইত্যাদি। সবাই একে অপরের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে ইফতারে শামিল হন। ক্যাম্পাসে যেসব বন্ধুবান্ধব নিয়ে একসাথে ইফতার করতে দেখা যায় যেখানে ধনী-গরিব কোনো ভেদাভেদ থাকে না। সবকিছু ভুলে ইফতারে অংশগ্রহণ করছেন অমুসলিম শিক্ষার্থীরাও। এ যেন অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের অনন্য নিদর্শন।

যদিও আয়োজন যেমনই হোক, মুখ্য উদ্দেশ্য একসঙ্গে ইফতার করা। আর তাই ইফতারের সময়টাতে পুরো ক্যাম্পাসজুড়ে বিরাজ করে অন্য রকম পরিবেশ। ইফতার শেষে শিক্ষার্থীদের মনে ও চোখেমুখে একপ্রকার তৃপ্তির উচ্ছ্বাস লক্ষ্য করা যায়। সারাদিনের রোজার ক্লান্তি সবার সাথে মিশে ইফতার করার মাধ্যমে নিমেষেই ম্লান হয়ে যায়।

বন্ধুদের সাথে ইফতারে অংশগ্রহণকারী আইন বিভাগের শিক্ষার্থী মো. রবিউল বলেন, ক্যাম্পাসের মধ্যে উৎসবমুখর পরিবেশে সবাই ইফতার করা আসলেই অনেক সুন্দর ব্যাপার। হাদিসেও সবার একসাথে ইফতারের বিষয়টি গুরুত্বের সাথে বর্ণনা করা হয়েছে। এতে সবার মধ্যে মিল-মহব্বত সৃষ্টি হয়, আর রমজানের বরকতে সেটা দীর্ঘস্থায়ীও হয়।

চারুকলার শিক্ষার্থী জিনিয়া ফারজানা প্রেমা বলেন, ক্যাম্পাসে এটাই আমার প্রথম রমজান। ইফতারের বিষয়টা দলবদ্ধ হয়ে না করলে ভালো লাগে না। তাই আমরা বন্ধুদের সাথে ইফতার করেই পরিবারের সাথে ইফতার করার আনন্দ উপভোগ করি।

আপনার ক্যাম্পাসের নানা ঘটনা, আয়োজন/ অসন্তোষ সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- inbox.odhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: inbox.odhikar@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড