• বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

কুবিতে প্রক্টরকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা, সাইরেন বাজিয়ে পুলিশের প্রবেশ 

  কুবি প্রতিনিধি

১৮ মার্চ ২০২৩, ১১:৪১
কুবিতে প্রক্টরকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা, সাইরেন বাজিয়ে পুলিশের প্রবেশ 

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) তিন শিক্ষার্থীকে প্রকাশ্যে মারধরের ঘটনায় শিক্ষার্থীরা হামলাকারীদের গ্রেফতার ও হামলায় ইন্ধন এবং দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হওয়ায় ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর কাজী ওমর সিদ্দিকীর অপসারণসহ ৫ দফা দাবি আদায়ে এবার গানে গানে প্রতিবাদ করেছেন শিক্ষার্থীরা।

গত বুধবার (১৬ মার্চ) সন্ধ্যা ৭টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের গোল চত্বরে 'কনসার্ট ফর জাস্টিস' নামে এই সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করেন। এ সময় শিক্ষার্থীরা কনসার্ট থেকে প্রক্টরকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেন।

আন্দোলনের মুখপাত্র জাহিদুল ইসলাম ঘোষণা দিয়ে বলেন, যদি আগামী রবিবার দুপুর ১২ টার মধ্যে প্রক্টর নিজ থেকে অব্যাহতি না নেয়। তাহলে আমরা আরও কঠোর আন্দোলনের দিকে যাব।

আন্দোলনের সমন্বয়ক ইমাম হোসেন মাসুম বলেন, পূর্বঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজকের এই কর্মসূচি। ৯ দিন অতিবাহিত হয়েছে এখনো প্রশাসন কোনো দৃশ্যমান পদক্ষেপ নেয়নি। আমরা দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত কর্মসূচি চালিয়ে যাব।

তাদের ৫ দফা দাবিগুলো হলো, শিক্ষার্থীদের ওপর অছাত্র এবং বহিরাগত হামলাকারীদের গ্রেফতার, বহিরাগতদের ক্যাম্পাসে প্রবেশে আজীবন নিষেধাজ্ঞা, আহত শিক্ষার্থী এনায়েত উল্লাহ এবং মো: সালমান চৌধুরীর বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার, সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা প্রদানপূর্বক নিরাপদ ক্যাম্পাস সুনিশ্চিত, এবং হামলায় ইন্ধনদাতা হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর (ভারপ্রাপ্ত) কাজী ওমর সিদ্দিকীর অপসারণের দাবি জানায়।

এ দিকে একই দিনে আন্দোলনকারীদের পূর্ব-নির্ধারিত শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি 'কনসার্ট ফর জাস্টিস'এ বাধা দেওয়ার চেষ্টা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে প্রক্টর (ভারপ্রাপ্ত) কাজী ওমর সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৪টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের গোল চত্বরে আন্দোলনকারীদের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের সামনে কনসার্টের স্টেজ তৈরি করতে গেলে প্রক্টর ওমর সিদ্দিকী রাস্তা বন্ধ করে কন্সার্ট করতে বাধা দেন বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান।

এ ব্যাপারে প্রক্টর (ভারপ্রাপ্ত) কাজী ওমর সিদ্দিকী বলেন, তাদেরকে কেউ কোনো বাধা দেয়নি, তাদেরকে শুধু বলা হয়েছিল যে আপনারা প্রোগ্রাম করেন তবে রাস্তা ব্লক করিয়েন না।

একই দিনে স্থানীয় কোটবাড়ি পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক এস এম আতিক উল্লাহর বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরে প্রশাসনের অনুমতি ছাড়া সাইরেন বাজিয়ে প্রবেশের। তবে এ বিষয়ে কোন অনুমতি দেয়নি এবং বিষয়টি অবগত নয় বলে জানিয়েছেন ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর কাজী ওমর সিদ্দিকী।

যদিও এস এম আতিক উল্লাহ বিষয়টি এড়িয়ে যান এবং জানতে চাইলে সংবাদকর্মীদের সাথে কথা বলতে রাজি হননি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক প্রক্টর আইনুল হক এ বিষয়ে জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে পুলিশ প্রবেশ করতে হলে সেটা প্রক্টরকে অবগত করতে হয়। তবে সাইরেন বাজাতে পারবে কিনা সেটা আমার জানা নেই। ইতোপূর্বে এমনটি হয়নি৷

সাবেক প্রক্টর অধ্যাপক ড. কাজী মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরকে অবগতি ছাড়া এভাবে পুলিশ প্রশাসন প্রবেশ করতে পারে না। আর সাইরেন বাজিয়ে ঢোকার কোনো কারণ এর আগে ছিল না। বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসে শুধুমাত্র যখন খালেদ সাইফুল্লাহ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে তখন পুলিশ সাইরেন বাজিয়ে আসছিল তবে তারা ভিতরে প্রবেশ করেনি।

আপনার ক্যাম্পাসের নানা ঘটনা, আয়োজন/ অসন্তোষ সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- inbox.odhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: inbox.odhikar@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড