• বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বহিরাগতদের মারধরের শিকার ইবি শিক্ষার্থীরা

চার ঘণ্টা পর আন্দোলন স্থগিত 

  ইবি প্রতিনিধি

১৪ মার্চ ২০২৩, ১৪:২৬
বহিরাগতদের মারধরের শিকার ইবি শিক্ষার্থীরা

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) দুই শিক্ষার্থীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে বহিরাগতদের বিরুদ্ধে। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী শেখপাড়া বাজারে ঘটনাটি ঘটে। পরবর্তীকালে ঘটনাটি জানাজানি হলে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক সংলগ্ন মহাসড়ক অবরোধ করেন।

অভিযুক্তদের বিচারের দাবিতে সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে আগুন জ্বালিয়ে আন্দোলন করেন শিক্ষার্থীরা। আন্দোলনে শিক্ষার্থীরা 'হৈ হৈ রৈ রৈ, হামলাকারী গেলি কৈ', 'আমার ক্যাম্পাস আমার থাক, বহিরাগত নিপাত যাক', 'আমার ভাই আহত কেন, প্রশাসন জবাব চাই' সহ বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকেন।

এ সময় মহাসড়কে প্রায় পাঁচ কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হয়। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) ফরহাদ হোসেন রাতের মধ্যেই গ্রেফতারের আশ্বাস দিলে শিক্ষার্থীরা আন্দোলন স্থগিত করেন। তখন মহাসড়ক ছেড়ে বিক্ষুব্ধ কিছু শিক্ষার্থী উপাচার্যর বাসভবনের গেইটে ইট-পাটকেল ছুড়ে মারেন। চার ঘণ্টা পর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনার প্রস্তাব পান শিক্ষার্থীরা।

মারধরের শিকার হওয়া দুই শিক্ষার্থী হলেন, ম্যানেজমেন্ট বিভাগের ১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী মোহাম্মদ হাসান জিসাদ ও ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের ১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী সুপ্ত হাসান। আহত দুইজনকে চিকিৎসার জন্য কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজে নেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে আন্দোলনরত এক শিক্ষার্থী বলেন, আমরা নিরাপদ ক্যাম্পাস চাই। আমাদের নিরাপত্তা চাই। ক্যাম্পাসে বহিরাগতদের অনুপ্রবেশ বন্ধ চাই। দাবি পূরণ না হলে আন্দোলন চলমান থাকবে।

রাত সাড়ে আটটায় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সামনে আসেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. শাহাদাৎ হোসেন আজাদ। তবে তিনি আন্দোলন থামাতে ব্যর্থ হয়ে, উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালামের সঙ্গে বৈঠকে বসেন। পরে রাত ১০টায় বৈঠকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি একটি দল বৈঠকে যোগ দেয়।

বৈঠকে শিক্ষার্থীরা তিন দফা দাবি তুলেন। তাঁদের দাবিগুলো হলো- এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার, শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা ও বিশ্ববিদ্যালয়ে বহিরাগতদের অনুপ্রবেশ বন্ধ করা। এছাড়াও ক্যাম্পাসে ৪টা গেট আছে সেখানে নিরাপত্তা বৃদ্ধি ও অতিরিক্ত আনসার মোতায়েন করতে হবে। আগামী তিন দিনের মধ্যে অভিযুক্তদের গ্রেফতার করতে হবে।

এ বিষয়ে প্রক্টর অধ্যাপক ড. শাহাদাৎ হোসেন আজাদ বলেন, শিক্ষার্থীদের দাবিদাওয়া পর্যালোচনা করে আগানো হবে। সব গেইটে পর্যাপ্ত আনসার মোতায়েন করা হবে।

এর আগে আজ সোমবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের মফিজ লেকে কিছু শিক্ষার্থীদের আড্ডা দেওয়ার সময় স্থানীয় বখাটেরা তাঁদের সাথে থাকা মেয়ে বান্ধবীদের ভিডিয়ো করে। এর প্রতিবাদ জানিয়ে তারা ভিডিয়ো ডিলিট করতে বললে উভয় পক্ষের তর্কাতর্কি হয়। সে সময় বহিরাগত আকাশ শিক্ষার্থীদের ক্যাম্পাসে বাহিরে পেলে দেখে নেবার হুমকি দেন।

এ ঘটনার পর জিসাদ ও সুপ্ত পার্শ্ববর্তী শেখপাড়া বাজারে মোটরসাইকেলের জন্য তেল আনতে গেলে, তাদের মারধর করেন আকাশসহ তিন চারজন বহিরাগত।

আপনার ক্যাম্পাসের নানা ঘটনা, আয়োজন/ অসন্তোষ সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- inbox.odhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: inbox.odhikar@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড