• বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বাবার কাছ থেকে সম্পত্তি লিখে নিতে শিশুটিকে আটকে রেখেছিলেন চেয়ারম্যান

  মোহাম্মদ আব্দুর রহিম, স্টাফ রিপোর্টার (বান্দরবান)

২৯ মার্চ ২০২৩, ১১:১২
বাবার কাছ থেকে সম্পত্তি লিখে নিতে শিশুটিকে আটকে রেখেছিলেন চেয়ারম্যান

বান্দরবানের লামা উপজেলার আজিজনগরে স্বর্ণ চুরির অপবাদে মা ও তার শিশু সন্তানকে মধ্যযুগীয় কায়দায় পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে আজিজনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জসিম উদ্দীনের বিরুদ্ধে। এ সময় স্থানীয়রা তাদের আত্ম-চিৎকার শুনে ৯৯৯ ফোন করলে পুলিশ এসে তাদের উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় গত সোমবার (২৭ মার্চ) রাতেই আজিজনগরে চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল করেছে স্থানীয় বিক্ষুব্ধ জনতা।

নির্যাতনের স্বীকার মা-ছেলে আজিজ নগর ইউনিয়নের সোলাইমান বাজার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের আশরাফ পাডার বাসিন্দা সেলিনা আক্তার (৩০) ও তার শিশু সন্তান মো. সেলিম ওরফে সোয়াদ (৯)। তার পিতার নাম মো. মোরশেদ। শিশুটি চাম্বি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী। এছাড়া নির্যাতনকারী ইউপি চেয়ারম্যান জসিম উদ্দীন ৩ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা।

এ ঘটনায় সেলিনা আক্তারের স্বামী ও সোহাগের পিতা মো. মুরশেদ হাওলাদার থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। অপর দিকে জসিম চেয়ারম্যানও লামা থানায় চুরির অভিযোগে করেছেন।

নির্যাতনের স্বীকার সোহাগের পিতা মো. মোরশেদ হাওলাদার বলেন, জসিম চেয়ারম্যানের স্ত্রী আমাকে ফোন করে গত শনিবার রাতে দেখা করতে বলেন, আমি আর আমার স্ত্রী সেখানে দেখা করতে গেলে আমাদের ছেলে তাদের স্বর্ণ চুরি করেছে বলে অভিযোগ জানিয়ে আমাদের তিনজনকেই মধ্যযুগীয় কায়দায় মারধর করেন। এর পর তারা আমার আহত ছেলেকে আটকিয়ে রাখেন। এ সময় আমাকে আমার সম্পত্তি লিখে দিয়ে ছেলেকে নিয়ে যেতে বলেন। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় আমরা ৯৯৯ এ ফোন করে ছেলেকে উদ্ধার করি। পরে স্থানীয় লোকজন আহত মা ও ছেলেকে বান্দরবান সদর হাসপাতালে ভর্তি করান। তারা বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, গত ২ বছর ধরে আমার ছেলেকে পড়ালেখার কথা বলে নিয়ে গিয়ে ঘরের কাজ করতে দেন চেয়ারম্যান। ঘরের কাজ করালেও দুই বছরে আমাদের কোনো টাকা দেয়নি।

এ বিষয়ে আজিজ নগর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর এনামুল হক ভূঁইয়া জানান, গত দুই বছর যাবত ছেলেটাকে লেখাপড়া করানোর জন্য বলে চেয়ারম্যানের বাসায় রাখছে। ছেলেটা বাড়ির কাজকর্মও করতেন। কয়দিন আগে চেয়ারম্যানের বউয়ের স্বর্ণ চুরি হয়েছে। সে স্বর্ণ চুরির অপবাদে চেয়ারম্যান ছেলেটাকে পিটাইছে। তারপরে মাকে বাবাকে ডেকেও কিল ঘুষি থাপ্পড় দিছে। পরে ছেলেটাকে আটকিয়ে রাখে চেয়ারম্যান। এ সময় ৯৯৯ নাম্বারে ফোন পেয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে তার বাবা-মায়ের জিম্মায় দেওয়া হয়েছে।

বিষয়টি জানতে চাইলে মুঠোফোনে অভিযুক্ত আজিজ নগর ইউপি চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন বলেন, সোয়াদ আমার বাসা থেকে স্বর্ণ চুরি করছে। ছেলেটা আমার কাছে ২ বছর ধরে ছিল। ৯৯৯ এর পুলিশ উদ্ধার করবে কি আমিকি তারে ধরে এনে বেঁধে রাখছি; যে উদ্ধার করবে। তাদের কথা যদি বিশ্বাস করেন লিখে দেন। আমার বাসায় যদি চুরি হয় আমি ছেলেকে কি আসসালামুআলাইকুম বলবো আমি ছেলেটাকে জিজ্ঞাসাবাদ করবো না, ধমক দেব না। আমিও স্বর্ণ চুরির দায়ে থানায় অভিযোগ করেছি।

এ ঘটনা প্রসঙ্গে লামা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শহীদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, ৯৯৯ এর কল পেয়ে আমরা শিশুটিকে উদ্ধার করে পিতা ও মায়ের জিম্মায় দেয়া হয়েছে। উভয় পক্ষ থানায় অভিযোগ দিয়েছে, আমরা তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো এটা মামলা হবে।

উল্লেখ্য, এ ঘটনায় সোমবার রাতে অসহায় নারী ও শিশুকে চুরির অপবাদ দিয়ে পিটিয়ে আহত করার প্রতিবাদে চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল করেছে স্থানীয় বিক্ষুব্ধ জনতা।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- inbox.odhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: inbox.odhikar@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড